আজ মঙ্গলবার, ১৪ই জুলাই, ২০২০ ইং, ৩০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শারজায় প্রবাসী বাংলাদেশীর মৃত্যু

আমিরাত সংবাদ

আমিরাতের শারজায় আজ ২৫-০৫-২০২০ ভোর ৫ টায় মঈনুল ইসলাম চৌধুরী নামের এক প্রবাসী বাংলাদেশীর মৃত্যু বরণ করেছেন। “ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন”

তিনি ব্রেন স্টোক করে দীর্ঘদিন শারজা কুয়েতি হাসপাতালের ICU তে থাকার পরে কিছুটা সুস্থ হয়ে মাস খানেক ধরে নিজ বাস ভবনে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

বাংলাদেশ সমিতি শারজাহ’র সাবেক কায্য নির্বাহী সদস্য একজন সাদা মনের মানুষ জনাব মঈনুল ইসলাম চৌধুরী গতকাল রাতের খাওয়া খেয়ে ঘুমিয়ে যায়। সকালে নাস্তা করার জন্য ডাকা হলে, সাড়া না পাওয়ায়, এ্যমবুলেন্সের জন্য ফোন করা হলে, তারা বুকে পাম্প করার জন্য বলেন এবং সাথে সাথে এ্যমবুলেন্সে এসে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মৃত বলে ঘোষনা করেন।

মৃত মঈনুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে এক সাইড প্যারালাইজড ও বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে আইনী জটিলতা এবং আরো কিছু ব্যক্তিগত সমস্যার কারনে দেশে যেতে পারেন নি!

মৃত্যু কালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫২ বছর , চট্রগ্রামের হাটহাজারিতে জন্মনেয়া পরোপকারী এ মানুষটি স্ত্রী ১ মেয়ে ২ ছেলে সহ অনেক গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

অত্যন্ত মানব দরদি, সমাজসেবক, দক্ষ সংগঠক,বাংলাদেশ সমিতি শারজাহ’র দীর্ঘদিনের সিনিয়র সদস্য,দলমত নির্বিশেষে সকলের প্রিয়ভাজন, বিশিষ্ট রাজনৈতিক জনাব মঈনুল হোসেন চৌধুরী ছিলেন শারজাহবাসীর হৃদয়ের কাছের আত্মার আত্মীয় তার মৃত্যুতে সকলে হকবাক নিস্তব্ধ !

জীবদ্দশায় মঈনুল হোসেন চৌধুরী অথিতিপরায়ন বন্ধুবৎসল এবং মানুষের দুঃখ দুর্দশায় ঝাপিয়ে পড়তেন! তার মরদেহ দেশে পাঠাতে সহযোগিতা চেয়েছেন মরহুমের ভাতিজা মোহাম্মদ রাশেদ মোবাইল নং 0553408885। তাই আমিরাতে বসবাসরত বিত্তশালী সমাজসেবক, সকল বন্ধু,প্রিয়জন এবং সাংগঠনিক বন্ধুদের অনুরোধ মরহুমের লাশ দেশে পাঠাতে এগিয়ে আসুন। যাতে করে তাঁর সন্তানরা শেষ বারের মত বাবার লাশটি যেন দেখতে পায়।